কানাডার মূল মালিকদের অসংখ্য শিশুকে হত্যার জন্য ক্ষমা চাইলেন পোপ

Bangla Radio 9 views
কানাডায় ক্যাথলিক চার্চ পরিচালিত আবাসিক স্কুলে আদিবাসী শিশুদের হত্যার ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। সোমবার কানাডার পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ আলবার্টার মাস্কওয়াসিসে এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে ক্ষমা চান তিনি।

শিশু হত্যার জন্য ক্ষমা চাইতেই কানাডা সফরে গেছেন বলে জানান ক্যাথলিক খ্রিষ্টানদের প্রধান এই ধর্মগুরু। ১৮৩১ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত লক্ষ লক্ষ আদিবাসী শিশুকে কথিত পশ্চিমা সভ্যতা শেখানোর নাম করে পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন করে আবাসিক স্কুলে পাঠানো হয়।

তৎকালীন ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক সরকারের অর্থায়নে এসব স্কুল ক্যাথলিক চার্চদের দ্বারা পরিচালিত হতো। প্রায় দুইশ' বছর আগের এসব স্কুলে আদিবাসী শিশুদের জোর করে তাদের পরিবার থেকে আলাদা করা হতো। এরপর তাদের ওপর চালানো হতো শারীরিক ও যৌন নিপীড়ন।

অনেক শিশু অপুষ্টিতে ভোগে মৃত্যুবরণ করেছে। কানাডার ট্রুথ অ্যান্ড রিকনসিলিয়েশন কমিশনের ২০১৫ সালে প্রতিবেদনে এ ঘটনাকে সাংস্কৃতিক গণহত্যা হিসেবে অভিহিত করা হয়।

কানাডায় একের পর এক আদিবাসী শিশুদের গণকবর খুঁজে পাওয়ার পর ব্রিটিশ উপনিবেশের বিরুদ্ধে কানাডাতেও ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এর আগে কানাডার বিক্ষুব্ধ জনতা উইনিপেগ শহরে স্থাপিত রানী ভিক্টোরিয়া ও রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের ভাস্কর্য উপড়ে ফেলেছেন।

ব্রিটিশ রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কানাডার রানী অর্থাৎ রাষ্ট্রপ্রধান। এর আগে রানী ভিক্টোরিয়াও কানাডা শাসন করেছেন।#

Add Comments